বাসর রাতে কি ব্যবহার করব?

আমি নতুন বিয়ে করব কিছুদিন পরেই। প্রেমের বিয়ে। পারিবারিক ভাবেই হচ্ছে। এখন আমরা বাসর রাতে কনডম ব্যবহার করতে চাচ্ছি না। এক্ষেত্রে কি ঔষধ খাওয়ান জাই আমার বউকে? কেউ বললে উপক্রিত হতাম? কিন্তু বাসর রাতের আগে খাওয়ান যাবে না। কারন ও কিনতে পারবে না। আর আমি ত দুরেই
 
 
 
 
 
 
আপনাদের কনডম ব্যবহার করা উচিৎ | কারণ এটা আপনাদের জীবনের প্রথম সঙ্গম | আর প্রথম সঙ্গমে বিভিন্ন রোগ জীবানুর হাত থেকে রক্ষা পেতে কনডম ব্যবহারের বিকল্প নেই | আর মিলনের আগে পিল খাওয়া ঠিক না |

বাসর রাতের আগে কি বউ কে পিল খাওয়ান যাবে?

আমি সামনের ২৫ তারিখ বিয়ে করব। প্রেমের বিয়ে কিন্তু পারিবারিক ভাবেই হচ্ছে। আমরা বাসর রাতে কনডম ব্যবহার করতে চাচ্ছি না। এক্ষেত্রে কি জন্ম নিয়ন্ত্রন পিল ব্যবহার করা যাবে? আমার হবু বউ এর মাসিক শুরু হয়েছিল ৯ তারিখ। আর ব্যবাহার করা গেলে কিভাবে খেতে হবে কত দিন আগে থেকে? একটু জানালে উপক্রিত হব।
 
 
 
  আপনি ইমারজেন্সি পিল "পিউলি" খাওয়াতে পারেন।

বাসর রাতে স্ত্রীকে প্রথম চুম্বন যদি নাভীতে করা হয়, তাহলে এটি কি নেতিবাচকভাবে দেখার কোন‌ও কারন থাকতে পারে?

মুভিতে তো অনেক কিছুই দেখা যায় সেটা যদি আপনি
আপনার বাস্তাব  জীবনে প্রতিফলন ঘটাতে চান তো বোকামি
করা হবে। এবং কী প্রভাব পড়বে সেটা সম্পূর্ণ আপনার

স্ত্রীর উপর নির্ভর করবে...?ব্যাপার টা উনি কি ভাবে নিবেন।

এমন ও হতে পারে আপনি এমন করার ফলে উনি ভাবতে

পারেন আপনি শুধু উনাকে ভোগ করতে চাইতাছেন।

আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

মেয়েদের ক্ষেত্রে প্রথম প্রেম নাকি বাসর রাত কোনটা সারা জীবন বেশী মনে থাকে।?

দুইটাই মনে রাখার মতো কাহিনী। তবে যদি তার সামনে কেউ প্রেমের কথা বললে তার প্রেমের কথার আর বিয়ের কথা বললে বাসর রাত। তবে যেহেতু আমরা সচরাচর প্রেমের কথাই তথা প্রেমিকের কথা আলোচনা করি তাই প্রেমিকের কথা মনে রাখার পসিবিলিটি বেশি।

এমন মানুষ কি আছে জগতে যার জীবনে প্রেম আসে নি?

হ্যাঁ আছে...!
কি..!  আশ্চর্য হলেন আমার কথা শুনে...?
আসলে আশ্চর্য হবারই কথা..!
কেননা এ সত্যটা অনেকেই জানেন না বা জানলেও ঘুণাক্ষরেও আপনার মন সেদিকে যায় না...  কোনদিন যায়ও নি...! জানার পর টাস্কি খেয়ে পল্টি মেরে বলবেন... আরে এ উত্তর তো আমিও জানি....!!!!

হ্যাঁ...!  উত্তরটা শুনুন তাহলে........

হ্যাঁ!  এমন মানুষ আছে জগতে যাঁর জীবনে প্রেম আসে নি।
সত্যিই আসে নি..! এখনো আসে নি...!!!!

তিনি হচ্ছেন "সাইয়্যেদুনা" "নাবীয়্যুনা" "হযরত ঈসা আলাইহিস সালাম"।

তাঁকে আল্লাহ পাক ৩৩ বৎসর বয়সে আসমানে তুলে নেন।
তখন তিনি যুবক ছিলেন।
তখন তিনি অবিবাহিত ছিলেন।

কেয়ামতের পূর্ব সময়ে তিনি "উম্মাতে মুহাম্মাদী" হিসেবে আসমান থেকে অবতরণ করবেন।
এবং শেষনবীর উম্মত হিসেবে নবীর সুন্নত পালনার্থে বিবাহ করবেন।
তখন তাঁর জীবনেও প্রেম আসবে।
তাঁর সন্তানাদিও হবে।

পৃথিবীকে সুশাসনে ভরপুর করে দেবেন।
স্বাভাবিকভাবেই তিনি ইন্তেকাল করবেন।
রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের রওজার পাশেই তাঁকে দাফন করা হবে.......।।।।।।

আমি আজও প্রেম করতে পারি নি কেন?

আচ্ছা কারো সাথে প্রেম করা কী খুব ভালো....!?? আপনার যে ফ্রেন্ড প্রেম করে বা করেছে তাকে জিজ্ঞাসা করুন তো সে প্রেম করে কি পেয়েছে...!?? আমার জানা মতে তার ক্ষতি ছাড়া আর কিছুই হয় নাই। প্রেম করতে পারেন নাই বলে মন খারাপ করার কিছু নাই। বরনং খুশি হওয়া উচিত। কারণ আপনি অনেক গুলা গুবাহ থেকে বেঁচে আছে।

চোখে ভাষায় তিন বছরের প্রেম,আজও কথা হয়নি ।এটা কি প্রেম?

কথা বললেই প্রেম ভালোবাস হয় না। প্রেম ভালোবাসা সৃষ্টি হয় মন থেকে, ভালোলাগা থেকে। আর আপনার হয়ত থাকে ভালোলাগে তাই তার দিকে থাকিয়ে থাকেন এবং সেও থাকায় এবং এর থেকেই হয়ত আপনাদের মাঝে ভালোবাসা সৃষ্টি হয়েছে। তাই বলা যায় আপনার তাকিয়ে থাকা আর তার তাকিয়ে থাকাটাই প্রেম।

শুকনা কাশি হলে কফ বেড় করার জন্য কি ঔষধ খাওয়া যায়। যেন কাশি টা না শুকিয়ে তরল হয়ে বেড় হয়ে আসে।?

১.আপনি লেবু এবং মধু একত্রে করে খেতে পারেন।

২.আদা, পুদিনা-পাতা, ক্যামোমাইল, রোজমেরি মিশিয়ে চা বানিয়ে পান করাও এক্ষেত্রে বেশ উপকারী। চিনির বদলে মধু ব্যবহার করলে মিলবে বাড়তি উপকার। চা ভালো না লাগলে আদা চিবিয়ে খেতে পারেন।

৩.অস্বস্তি থেকে সাময়িক আরাম মেলে ব্ল্যাক কফি পান করলে। আর জমে থাকা সর্দি গলাতেও উপকারী। তবে দিনে দুই কাপের বেশি পান করা যাবে না, কারণ অতিরিক্ত ক্যাফেইন স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

ঔষুধ  নিতে চাইলে চিকিৎসক এর পরামর্শ নিন




.......
কাশি হলে যা করবেন * প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন, এতে কফ পাতলা হবে।  * গরম পানির ভাপ নিন। ভাপ শ্বাসনালিতে গিয়ে পানিতে পরিণত হবে। * শুকনো কাশিতে গলা খুসখুস করলে হালকা গরম পানিতে একটু লবণ দিয়ে কুলকুচি করুন। মুখে যে কোনো লজেন্স, লবঙ্গ বা আদা রাখলেও আরাম পাওয়া যাবে। 
.......

আপনি Tofen সিরাপ বোতলের নির্দেশনা অনুসারে সেবন করুন।
নিম্নোক্ত কিছু উপায়ে আপনি উপকার পাবেন।
- ২ কাপ পানিতে ১ টেবিল চামচ আদা কুচি একটু ছেঁচে দিয়ে ফুটাতে থাকুন।
- পানি শুকিয়ে ১ কাপ হয়ে এলে এতে ১-২ চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করুন, বেশ ভালো ও দ্রুত ফল পাবেন।
- চাইলে শুধু আদা লবণ দিয়ে চিবিয়ে খেয়ে দেখতে পারেন। এতেও অনেক উপকার হবে।

ছাড়পোকা দুর করার উপায় কি?

১. আসবাবাপত্র ও লেপ তোশক পরিষ্কার রাখার সাথে সাথে নিয়মিত রোদে দিন। এতে করে ছারপোকার আক্রমণ কমে যাওয়ার সাথে সাথে ছারপোকা থাকলে সেগুলোও মারা যাবে।

২. ছারপোকার হাত থেরে রেহাই পেতে আপনার বিছানা দেয়াল থেকে দূরে স্থাপন করুন। শোবার আগে ও পরে বিছানা ভালো করে ঝেড়ে ফেলুন সাথে পরিষ্কার পরিছন্ন থাকুন।

৩. ঘরের যে স্থানে ছারপোকার বাস সেখানে ল্যাভেন্ডার অয়েল স্প্রে করুন। দুই থেকে তিনদিন এভাবে স্প্রে করার ফলে ছারপোকা আপনার ঘর ছেড়ে পালাবে।

৪. এক লিটার পানিতে ডিটারজেন্ট যেমন সার্ফ এক্সেল ঘন করে মিশিয়ে স্প্রে করুন। এ উপায়ে স্প্রে করার ফলে ছারপোকা সহজেই মারা যাবে।

৫. বিছানাসহ অন্যান্য জায়গা থেকে ছারপোকা তাড়াতে সারা ঘরে ভালো করে ভ্যাকুয়াম করুন। ভ্যাকুয়াম করার সময় খেয়াল রাখুন যাতে ঘরের মেঝেও বাদ না পড়ে। এতে করে আপনার ঘরে ছারপোকার আক্রমণ অনেকটাই কমে যাবে।

৬. আপনার ঘরের ছারপোকা তাড়াতে অ্যালকোহল ব্যবহার করতে পারেন। ছারপোকা প্রবণ জায়গায় সামান্য অ্যালকোহল স্প্রে করে দিন দেখবেন ছারপোকা মরে যাবে।

৭. ছারপোকা মোটামুটি ১১৩ ডিগ্রি তাপমাত্রাতে মারা যায়। ঘরে ছারপোকার আধিক্য বেশী হলে বিছানার চাদর, বালিশের কভার, কাঁথা ও ঘরের ছারপোকা আক্রান্ত জায়গাগুলোর কাপড় বেশী তাপে সিদ্ধ করে ধুয়ে ফেলুন। ছারপোকা এতে মারা যাবে।

৮. দোকান থেকে পোকামাকড় মারার ঔষধ কিনে ঘরে রাখুন। এবং সন্দেহজনক স্থানে কিছুটা স্প্রে করে দিন। তবে সাবধান থাকবেন পোকা মারার ঔষধের ক্ষেত্রে। মানুষের সংস্পর্শে না আসাই ভাল

এক এলাকা হতে অন্য এলাকায় মিটার স্থানান্তর করতে কত টাকা লাগে ?

আমি মিটার স্হানান্তর করেছিলাম তখন ৫ হাজার টাকা নিয়েছিল

ঘুমের মধ্যে কথা বলেছি নাকি বলি নাই সেটা টের পাবো কিভাবে?

আপনি নিম্নোক্ত কিছু কাজ করুন -


১. সঠিক সময়ে ঘুমানোর চেষ্টা করুন।
২. শোয়ার সময় কাউকে পাশে নিয়ে ঘুমানোর চেষ্টা করুন।
৩. অতিরিক্ত মানসিক চিন্তা পরিহার করুন।
৪. পর্যাপ্ত সময় পর্যন্ত ঘুমানোর চেষ্টা করুন।
৫. কোন বিষয়ে অতিরিক্ত ভাবনা থেকে বিরত থাকুন।
৬. পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করুন।
৭. অতিরিক্ত হতাশা থেকে বিরত থাকুন।

আমার লিঙ্গ সাধারন ভাবে ৩" কিন্তু উত্তেজিত অবস্থায় ৫".৫ ইঞ্চি। আমার উচ্চতা ৫ফিট ৫". উচ্চতা অনুজাই আমার লিঙ্গ কি ঠিক আছে? আমার বয়স ২৩ ও ওজন ৬৮ কেজি?

আপনার লিঙ্গ ঠিক আাছে পাশাপাশি ওজন ও উচ্চতার অনুপাতও ঠিক রয়েছে।আপনি একজন স্বাভাবিক সুস্থ মানুষ।

উত্তেজিত অবস্থায় লিঙ্গের সাইজ ৪ ইঞ্চির চাইতে একটু বেশী স্বাভাবিক অবস্থায় ১.৫ ইঞ্চির চাইতেও কম এটা কি কোন অস্বাভাবিকতার লক্ষন? করনীয় কি?

না এইটা কোন অস্বাভাবিকতার লক্ষন না।

তবে ৩ ইঞ্চির চেয়ে কম হলে সেটা অস্বাভাবিক।

এরপরে ও যদি বড় করতে চান তবে লিঙ্গের বিভিন্ন ব্যায়াম আছে সেগুলো করতে পারেন।

তবে কোন রকম মালিষ বা তেল ব্যাবহার করবেন না

কারন এগুলোর কোনটা এখন পর্যন্ত কার্যকরী প্রমাণীত হয় নি।

আমার লিঙ্গ উত্তেজিত অবস্তায় ৩.৮ ইচ্ছি লম্বা এবং ৮ সে. মি মোটা। খুব চিন্তায় আছি, আমি বউকে কি সুখ দিতে পারব?

আসলে স্ত্রীকে সুখ দেওয়ার জন্য একজন পুরুষের পুরুষাঙ্গ সর্বনিম্ন  উত্তেজিত অবস্থায় ৩" হতে হয়।  সেই দিক থেকে আপনি চিন্তামুক্ত থাকতে পারেন।

Total Pageviews